প্রথম খণ্ড

/ পাসতিশনি

শ্রীদেবী প্রসম্ন রায় চৌধুরী কর্তৃক সন্গপাদিত প্রকাশিত

কলিকাত!

২১০1১ কর্ণঝয়(রিম রী, ভিষ্টোরিয। প্রেদে স্ীতূবনমোহন ঘোষ দ্বারা মুদ্রিত ২০18 কর্ণওয়াজিম প্রীট হইতে প্রকাশিত

২৯০ সাল! এন

প্রথমখণ্ড নব্যভারতের স্রুচিপত্র |

[ প্রবন্ধ সকলের মতামতের জন্য লেখকগণ দায়ী]

বিষয় লেখকাঁদগের নাম পৃষ্ঠা গচিষ্্য শকতি ভব কি বুঝিব দয়াময়! (পদ্য) (শ্রীযোপীন্রনাথ বন্মু, বি, এ, ) ... ২২ আগ্রিময় জ্বলন্ত পুকষ | (শ্রীবিষুচরণ চট্টোপাধ্যায় ) , ০২০ ৮৯১২৩ অসি (ডাঃ রামদাপ সেন) *** ১৫৭১২*৬,২৭২ আনস্ত মিলনের রজো (নম্পাদক) ৪০৪ **০ ৫৫৩ আমোদ প্রমোদ (ভ্রীবিজয় চক্র মজুমদার) "১ ০৯ ২১৫ আগুাম।ন নিকোবর দ্বীপপুপ্তের অধিবাসী (শ্রীবিজয় লাল দত্ত) ২২১, ৩৪০ আকাঁশের তারা (ভশ্রীবিজয় চন্দ্র মজুমদার ) ০০০ রর ৩৩? ,আনন্দমট ( সমালে'চন1) (শ্রীবিস্ুঃচরণ চট্টোপাধ্যায় ) ০০৩৯৪, আকাজ্ষা। (পদ) (আচন্ত্রকান্ত সেন, এম, এ,.বিএল, ) ১৯৫৩৯ ইতিহাসে নাস্ডিকত]। 6 5, ১০ ২৩৯ একত।। (শ্রীরামগোপাল বন্ট্যেপাধ্যায় ) ০০০ ১০৪ ৪৮৯ ওরে প্রাণ কি তোর বানা? (পদ্য) €শ্রীবিজয়চন্জ্ মঙ্জুমদার ) রঃ ওয়ার্ডসোয়ার্থ, কীট শেলীর প্রেতাক্মার আবাহন |: (পদা) ( জ্রীবিদয়চন্ মজুমদার ) ৯৩ উত্সব সঙ্গীত (পদ্য) রা ১১৫৪৯ কবি এবং কবিতা (শ্রীরিষুঃচরণ চট্টোপাধ্যায়). ০১, ২৪৯ কলিকাত। ছুই শত বছর পূর্বে। (পণ্ডিত হরপ্রসাঁ শৃত্ীঃ এয, এ,) ২৫৬ €কশবচন্্র (পদ্য) ( ভীবিজয় চন্দ্র মজুমদার ) ৮০, রর ৪১৯ . চন্দ্রশেখর (সমালোচন।) (শ্রীলোকনাথ চক্রবর্তী ) ১০০ ২৯৬ ' জীবনগতি নির্ণর (শ্রীচণ্ডীচরপ সেন ) রঃ ৯,৬৪,৯৭১১৭৪১২২৭,৩১৩)৪৫২ জাতীয় একতা (প্রীাদিত্য কুমার চট্োপাধ্য/য় বি, ঠা 8 ৮২,৩৮৫ জাতীয় উৎ্সব। (শ্রীদয়ালচন্দ্র ঘোষ ) ১০০ 88 জ্রীবন বিজ্ঞান। (শ্রীফণীভূষণ মুখোপাধ্যাক্স, বি, এপ-সি ) ৮০৪৩২ ধন্ম, নীতি সমাজ (প্রীআনন্দচন্ত্র মিজি) 1, 9 ধু নব্যভারত। (সম্পাদক) রি ০০৯

নবলীল|। (উপন্যাস) (সম্পাদক) ১৭০,২৩৩১২৮২,৩৩১১৩৮৯৪২৯১৪৭২ এবং ৫৪১ নারী জীবনে প্রাচীন হিন্দু এবং ইংলণ্ডীয় সভাততার ফলাফল (্রীচণ্ডীচরণ সেন) ১৮৩

নরবলি। (ত্রীক্ষীরোদচন্দ্র রায়চৌধুরী, এম, এ): ""* ১০২১২ নারায়ণদেব। ( জ্ীগগনচন্দ্র হোম) *5। "৩১৬১

পাশ্চাত্য মায়াবাঁদ (শ্রীলীতানাথ দত্ত) ১৮১১০৮১১৪৯১২৮৭) ৩৬৮ গাতাতে। (পদ্য) (শ্রীবিজয় চক্র 'অঞ্চুমদার ) ৪০০ ১৯৭

৩5

য়। লেখকদিগের নাম ... পুষ্ঠা রিনি উন্ম্তত1 ? (শ্রীদিজেন্্রলাল রায়, বি) এ, ) | ১, ৩৫3 টি গ্রস্থের সংক্ষিপ্ত সমালোচন। তত, ২৯৫১৩৯১১৮৩৬ এবং ৫৭১. বোনতত্ব। (পণ্ডিত কালীবর বেদান্তবাগীশ ) ১০৫ ১, ৪৯ বিবিধ প্রসঙ্গ সমালোচন (সম্পাদক ) টি ১৩৯১ ১৯৮ * বিজ্ঞান ধর্ম (শ্রীআনন্দচন্ত্র মিত্র) . '** "১১৩৯ বীর এবং বীরত্ব (শ্রীবিষুঃচরণ চট্োপাধ॥ায়) ৮১, দি ১৫৩ বাঙ্সীকি বেদবান। ( শ্রীগোপীচন্ত্র নেন গুপ্ত) ** ৩৭১১৪০৮১৪৫৮) ৫০১ বাহির বা ভিতর? (সম্পাদক) :*।1188৩ বিকাশ (ভ্রীবিষ্ণচরণ চটোপাধ্যায় ) রি ভর জ!তৃদ্বিতীয়! ( শ্রীবিয়চন্দ্র মস্তুমদার ) .., | ৪৮০: শ্ইুরি, ভারছে পৌন্তলিকাতা (শ্রীঙ্গানন্দচন্দর ) ১০. . বহি ভক্ত কেশবচন্দ্র। (সম্পাদক ) রর ১8১৫ ভারতে ইংরাজ রাজত্ব . £ ০০ এরি মহাশক্তি। (শ্রীবিষুঃচরণ চট্টোপাধায় | রি 5 বেগ। (পণ্ডিত রামকুমার বিদ্যারত্ব ) : | ১৩৯১৯ ৭৬ রামমোহন রায়ের ধশ্ৰ বিষয়ক মত (শ্রীনগেন্দ্রণাথ চট্োপাঁধা।য় ) ২৪,১০৬ রূপের কথা ত্রীবিজয়চন্্র মজুমদার বি লোক-সংগা1। (শ্রীপিদ্ধেশ্বর রায় ) ১৭৯.২৪ ৩১২৯১১৩৫৭১৪ ৩৬,৪৬৩ ৫৬১ লক্ষযাপথে (সম্পাদক) রঃ ৪8৪৮. শঙ্করাচার্যয (শ্রীদ্দিজদ[স দত্ত, এম, এ, ) ঠা ১২৯,১৯২,২৮০১৪৭৭

শাকাচরিত, বৌদ্ধধর্ম বৌদ্ধদর্শন প্র্ীরোদচজ রায়চৌধুরী, এম, এ, ) ১৬৬,২৬১,৩৪৫, 1. | ৪২০১৪৮১ ৫১৬/'

শ্মশান-সঙ্গীত (পদ) (শ্রীদিজেন্্র লাল রায় বি) এ) *** ত্র সর্্য। (শ্রীদুর্যযকুমার অধিকারী, বি, (এ, ) ২. সম্ভোষ ক্ষেত্র (শ্রীরজনীকাস্ত গুপ্ত ) | '* ৩৩ হাবীনত1। (পণ্ডিত শিবনাথ শালী, রিম, ) ৮৪৪ ৩৬)৮১৬১৪ সামরিক প্রেনঙ্ক |, (সম্পাদক ) : 8২১৯৪ হুূর্ধয সময়। (শ্রীসথর্মাকৃমার অধিকারী, বি, এ) উর সু ৭৪ নতীদেহ হ্বদ্ধে মহাদেবের নৃত্য (শ্রীগোবিন্দচন্দ্র দাস ) ৯৯২ ১৫৪ সভ্যতা (পণ্ডিত কালীবর বেদাস্তবাগীণ ) ডঃ ১,৪৪১ সামাপ্সিক শাঁদন ব্যক্তিগত স্বাধীনভ'। সাগর রায়). 5, ৫১২ হিন্ু আর্ধ্যগথের বেদাধ্য়ন। ( ভ্রীরজনীকান্ত গুপ্ত) ' রা ৭৯ ক্ষেপাভোলার চিন্ত। তরঙ্গ ( জীবিযুংচরণ রাডাবারা ) **, ৫৪)১৩২

্ুর ক্ষুদ্র কবিত|। (ঞীবিজয়চন্ মৃমার জীগোবিনাচজা দাঁপ ) ২২৬ ৫৫১

*

নব্ভারত।

০৫০০১ ৬৫

মাসিক পত্র সমালোচন |

ইজযষ্ঠ_-১২৯০ সাল

সাপটি তাল্ট শী চে * শপ শি পি পপ শা পপ জি পা অসপপপসবপ্ টপস

নব্যভারত।

১৩

ভারত-ইতিহাস লেখকগণ কলম ধরিয়া সালের জৈষ্ঠ মাসে প্রাচীন ভারত 'নবাভারত নামে অভিহিত হইল। পৃথিবীর যদি বুঝিবার শক্তি থাকে, তবে পৃথিবী বুবিবে_-প্রকৃত পক্ষেই ভারত বর্ত- মান সময়ে “নব্যভারত, মামে পৃথিবীর কাহিনীতে আখ]াত হুইয়াছে। একি অহ- ক্ক'রের কথা? বাহার! বিজ্রূপপ্রিয়-_উপহ্থাস

করাই ধাহাদিগের শ্বভাব,_-তাহারা একথা '

বলিবেম, তাহা! জানি; তাহাদিগকে একথ! ধলিতে দেও। দরিদ্রের কুদ্ীরে যখন মব সম্ত।ন জন্মগ্রহণ করে এবং. সেই দরিদ্র যখন

আহ্লাদ সহকারে সেই সংবাদ দ্বারে দ্বারে,

প্রচার করিতে ধায়; ন্‌ ধন ধমি-জগণ্ যে তাহাকে বাতুল বলিয়া উপেক্ষা করিয়! থাকে, 'তাই। সকলেই জামেন; কিন্তু দরিদ্র কি

আহ্লাদ করিবার কিছুই নাই? মিবিষ্টচিত্বে

ক্ষণকাল ভাবিয়া 'দেখিলে সফলেই. বুঝিতে পারেছু িরিতেরও আহমাদ ফরিষার বত্ আাছে- সতের জন্যও পৃথিবীতে সুখ রছি-

কক

লিখিয়া হর

' সম্ভব

য়াছে, দরিদ্রও সত্য কথা! বলিতে অধিকারী প্রাচীন ভারডের নব জরধবমের নূতন সংবাদ প্রচার করিতে কতিপয় দরিদ্র লোক অগ্রসর হইয়াছেন--লোকে ঠা্টা করবে, উপহাস . : করিবে, আশ্চর্য্য কি? সত্য কাহিনী প্রচার করিবার সময় বাধা বিক্প স্মরণ করিয়া যে

নিরস্ত থাকে বে মূর্থ * প্রাচীন ভারত “নব্য: :

ভারত, বেশে জগতের নিকট উপস্থিত হই- য়াছেন, আমরা একথা বলিব-__কাহারও কথা শুনিব না। ইতিহাস লেখকগণও সকল প্রকার বাঁধা বিশ্ব অতিক্রম করিয়া, কলম ধরিয়া এই কথা বাক্ষরে ইতিহাসের পৃষ্ঠায় ধের টরাথিবেন।

কি--ভারত নূতন? প্রাচীন ভারত আবার নতম হইল? বৃদ্ধ কি যুবকে পৰি- ণত হইতে পারে, শি কি শাস্ত্র? পুনর্জন্সে কি. তবে বিশ্বাস করিতে হইবে? প্রাচীন ভারত আর প্রাচীন হইবেন, না পুনঃ নবীনত্বে পরিণত হইলেন.? আমর] বলি, সকলি জড়জগৎ্ হইতে প্রাণি-জগঞ পর্য্যস্ত সকলেরই উথান পতন আছে। বৃক্ষের, পুরাতন পদ্র ঝরিয়! পড়ে--আবার নুতন পঞ্জ শাখং প্রশাখাকে শোভিত করে ১.

মব্যভারত

(১ম খণ্ড, ১ম সংখ্যা

ম্হুষ্যের নিস্তেজ মলিন অঙ্গও এক | কালের সহিত মিশাইয়া গিয়ঃছে ;--সে

সময়ে সতেজে কত শোভা ধারণ করে। একবার মসুষ্য নীতি সন্বদ্ধে হীন হয় পতিত হুর-আবার উজ্জ্বল বর্ণে শোভিত হুয়-_স্থুনীতিতে ভূষিত হয় এই মন্ত্রাজগতে এমন লেকের অস্তিত্ব অনুভব করা যায় না, যেএকবার পতিত হইয়া ন| উঠিয়াছে,- একবার মরিয়া যেনা বাচিরাছে মনুষ্য - প্রকবার মরে, আবার বাঁচে ;--একবার বুদ্ধ হয, আবার নবীন হয়_-আবার নব রসে পূর্ণ হয়। মনুষ্য সম্বদ্ধে যাহা, দেশ সন্বন্ধেও তাহা, ইহার একটুও ব্যতিক্রম নাই পৃথিবীর অবিশ্রাস্ত গতিতে ঘূর্ণায়মান হইতে হইতে কোন দেশ ডুবিতেছে, কোন দেশ উঠিতেছে,_-কে!ন দেশের মৃত্যু হইতেছে*_ কোন দেশের পুনর্জন্ম লাভ হইতেছে কালের অনস্ত লীলায় একবার যে দেশ মৃষ্ত্য- মুখে পড়িরাছিল,বে দেশ সময়ে আবার জীবন ল[ভ করিতেছে। এই প্রকার জন্ম মৃত্যু দেন পৃথিবীর সর্বত্র ঘুরিয়৷ ফিরিতেছে। একব|র ইটালীর উ্|ন,আবার পতন,আবার উত্ান। ইতিহাসে যাহা ইটালী সম্বন্ধে ঘটিয়াছে-- ইতিহাসে তাহাই হতভাগ্য ভারত সম্বন্ধে ঘটিরনাছে ঘটিতেছে। প্রাচীন ভারতের স্মৃতি নব্যভারতের এক সম্পত্তি বিশেষ বটে, কিন্ত প্রঃচীন ভারতের আর কি আছে? সক- লেই জনেন--কিডুই নাই। সে গার্ধা নাই, সে খন| নাই। মে লীলাবতী নাই, সে সাবিত্রী নাই, সে যুধিষ্টির নাই, সে ভীম নাই, সে রামচন্্র নাই, সে কণিক নাই, সে চার্ব্ক ন/ই, সে কালিদাস নাই, সে আর্যয- ভষ্ট নাই. সে বরাহমিহির নাই,_সে কালের আম! ভরসা] কিছুই নাই,। কিছুই নাই-_ ভ'চ্ছে: পুর্বকাহিনী স্বপ্ন হইয়া অতীভ

কালের কোন বস্থর সহিত এশসণকার

আর নাদৃশা নাই। সহস্র বৎসর স্তব জ্রতি করিলে আর সে সকল ধিবিবে না। সে অ্রস্ত, যে আজও সেই

সকল মায়ামর দ্বপ্ন ভারতবর্ষে_এই হিন্দু- স্থনে বপ্তন!ন শত!ন্দীতে দেখিয়া তুল- তেছে। সেকালের কিছুই নাই। স্মৃতি লইগ1পুজ1 করিতে চ1ও, কর, কিন্তু ইতি- হস কথার সাক্ষ্য দিবেই দিবে যে, সে ক'লের কিছুই নাই। ভারতের পুর্বের সকলই কালের অনস্ত সাগরে বিলীন হই! গিয়াছে_কিছুই নাই। ভারতের পূর্ব জীবনী শক্তি যখন একেবারে বিলুপ্ত হইল, যখন একে একে সকল রত্ব ভাঁরত বক্ষকে শুন্য করিয়। পলারন করিল, তখন ইতিহাস লেখকগণ শে।কার্ত হৃদয়ে চক্ষের জলের থারা ইতিহাসে লিখিলেন--ভারত মৃত্যু মুখে পতিত হইরাছে। নেই হইতে ভারতগগণ অন্ধকারে আচ্ছন্ন হইল,-_- দেই ভীষণ বিভীষিকাময় অন্ধকারে হীন- চেত। পশু সকল দলে দলে বিচরণ করিতে লাগিল; কেহ কাহাকে দেখে না,--কেহ কাহ!কে চেনে ন।;-এই প্রকারে ভারত কতকাল মৃত্যুতে পড়িয়া! রহিল। ভার- তের দুর্দশার সে কাহিনী কেব। বলিতে পারে১কেবা শুশিতে জানে? সেই সমণ্রে মৃত ভারতের ইতিহ!'ন আর কেহ লিখিল না। কত শত বৎসর চলিরা গেল- দরিদ্র ভারত যে মৃত সেই মৃত সকলের আশার দীপ একেবারে নির্বাণ হইয়া গেল--ভারত আবার জীবন পাইবে, আশা আর কাহাঁ- রও হৃদয়ে স্থান পাইল ন|।

আমর! ভারতের সেই অতীত কাহিনী

সকল' শ্মরধ তিতা আজ চর্সের জলে ভাপিতেছি- সকল ঘটনা লি'খতে ইচ্ছ' হইতেছে না;--সকল কথা ব্যক্ত করিতে

হদয় অগ্রসর হইতেছে ন।। এই মরু- ভূমিতে আঁবার সরশী সুজিত হইবে, অন্ধকার গৃহে আবার উজ্জ্বল অ'লোক শোভা প1ইবে-ভারতে আবার ্থুর্ধ্য উদিত হইধে, চিস্ত| তখন কাহারও মনে স্থান পায় নাই। কিন্তু পৃথিবীর ইত্হ!ম এই সময়েকি দেখিল? নবিন্ময়ে জগত দেখিল-ধীরে ধীরে ভারত আবার

নবীন হ্ুর্য্য উদিত হইতেছে ভারত অন্ধ- কারে আবার দীপ জলিতেছে দেখিয়া সেই সমরে পৃথিবী কলরব করিয়! উঠিল। ভারত তখন আলোকের মন্ন কিছুই

গগণে

বুঝে নাই-_ভারতের হখন বুঝিবার শক্ত ছিল না ভারত ভূমির সেই হ্র্ষেযা-

দয়ের কল ইংরাক্ষ রাজত্বের সমর হইতে গণন|! করা যায়। যে কারণেই হউক, ইংরাজ ভারতকে উদ্ধার করিলেন,_-তার- তকে জীবিত করিলেন। তারপর কি হইল?-ুর্্য ধীরে ধীরে গগণে উঠিতে লাগিল; মে জাতি শত শত বৎ্নর অন্ধ- কারে বাস করিয়া চক্ষুর জ্যোতি হারা- ইর়াছিল, সেই জাতির আলোক নহ্য হইল না,তাহার কলরব করিয়া উঠিল,__ অত্যাচার-_-অবিচার--অধীনত! এই প্রকার কত কর্কশ ধ্বনি. আকাশে তুনিতে | লাগিল। ইংরাক্র রাজতকে ছুঃখের বলিতে চাও বল, কিন্তু ভাই, নিশ্চয় জানিও, সু্ধ্য কখনও এত শীঘ্র ভারত-গগণে উদ্দিত হইত না, যদি ইংরাজ ভারতে পদার্পণ না করিত। যা*ক সে কথায় আজ প্রয়োজন শাই। নুরধ্য ভারতকে আলোকিত করিবার

পাশা শসা শশী

৮৩ তি শশী শী টি শী শী্াাশশীশীশট এটি ০০৮

জন্য ভািরাভিল লোভ করিল। ভারতের সকসে তখন মুখ চেন।চিনি করিতে লাগিল--'জর ভারতের জয় এই শব

চতুন্দিকে ঘোধিত হইতে লাগিল,--পূর্ব স্মৃতি

হৃদয়ে জ্বলিয়। উঠিল,_কেহ বক্ষে আঘাত করিয়া হাহাকার করিতে লাগিল,_ কেহ করন্দন করিতে লাগিল,_কেহ ইংরাজকে। 'ডাইবার জনা অলীক আশার স্বপ্ন দেখিয়। নময় কাটাইতে লাগিল। কিন্ত সময়ও দীর্ঘকাল স্থারী হইল না.--সৌভাগ্যবশতঃ শিক্ষার সহিত ভারতের উষ্ণ রক্ত একটু শীতল হুইল,._-ভারতবাসী স্বাভাবিক কোমলভাকে পূর্ণ হইতে লাগিলেন এই প্রকারে রুষে ক্রমে ভারত জীবন পাইলেন ;--কেবল জীবন নহে, শক্তি পাইলেন ;-ভাল মন্দ বুঝিবার জ্ঞান জন্মিল,__নীতির আদর বুঝি লেন। ভারত তখন ইংবাঁজকে নমস্কার করিতে শিখিলেন, ভারতের মস্তক নত হইল। এই সময়ে আমরা ভারতকে “নবাভ!রত” বলিয়া অভিহিত করিলাম ;-- পৃথিবীর সভা, অসভ্য অসংখ্য জাতি এই সমরে ভারতকে একব'ক্যে নব্যভারভ” বলিগা ব্যাখ্য। করিল। |

কেহ কেহ বলিতে প!রেন--সেই প্রাঈীন ভারতই যে এই, তাহার প্রষাণ কি? প্রম!ণ চ!ও ?--ভাঁরতের উত্তরদিকে ভাকা-

থে!

ইয়া দেখ-ঞঁ হিমালয় অদ্যাবধি মস্তক

উত্তে“ন করিয়া আপন বক্ষে স্মৃতির চিই সকল ত'স্কত করিয়া রাখিয়া তোমার কথার

উত্তর দ্বার জন্য দীড়াইয় রহিয়াছে ;--

&ঁ আর্ধ্যাবর্ত রহিয়াছে ;-& গঙ্গা যমুনা রহির'ছে;_ অযোধ্য। রহিয়াছে আর কি. চাও ?--এ দেখ, ভারতবাসীর হৃদয়ে, সহ্গ- দয়তার উজ্জ্বল অক্ষরে প্রাচীন ভারতের চিহ্ন

বিদ্যমান রহিয়াছে ;-দেখ, ধর্ম-প্রধান | হইবে

প্রাচীন ভারতের দয় ধর্ম কি প্রকারে মবা- ভারতের হৃদয়কে অধিকার করিয়! রহিয়াছে; দেখ, স্তপাকারে প্রাচীন সংঙ্গত গ্রস্থ সকল 'নব্যভারতের, ভাষার শোভা! সৌনর্ধয কি প্রকারে বৃদ্ধি কিতেছে,_-ভাঁষার মূলে কি প্রকার শক্তি সঞ্চর করিতেছে সে ভ্রান্ত, যে প্রাচীন ভারতের অসংখ্য অসংখ্য প্রমাণ পাইয়াও তাহাকে তুচ্ছ করে-এবং প্রাচীন ভারত যে নব ভূষণে ভূষিত হইয়া! পৃথিবীর চক্ষুকে আকৃই করিতেছে, তাহা যে অন্বীকার করে। ভারত-ইতিহাসের গু অভ্রাস্ত সত্য সকলকে যে অস্বীকার করিল, তাহার কি বিডৃম্বন।! !

প্রাচীন ভারতের সহিত নূত্তন ভারতের কি প্রভেদ, একথার আলোচনায় আমর। অদ্য প্রবৃত্ত হইব নাঁ। প্রাচীন ভারত শ্রেষ্ঠ, কি 'নব্য ভারত, শ্রেষ্জ লেবিষয় লইয়াও তর্ক যুদ্ধে প্রবৃত্ত হইব না। আমরা এই মাত্র ঘলি, মে সময়ের ভাল সেই সময়েই ভাল লাগির'ছে--আর সময়ের ভাল সম* য়েই ভাল লাগিতেছে। কিন্ত একটী কথা আমর] এস্থলে বপিব, নে সময়ে বাহুবলে যাহা! নংদিদ্ধ হইতঃ সময়ে বুন্দিবলে: জ্ঞনবলে তাহা সংসাধিত হইবে, আশা হই- তেছে। “নব্যভারত' এখন বুঝিতে পারি- (তেছেন--নীতিবলের ন্যার পৃথিবীতে আর বল নাই; পাপের ন্যার আর ভগানক শক্র লাই। '্মব্যভারত” আর কি বুঝিতে পারি- তেছেন ?-বুক্ষিতেছেন। একতাই মানবের ' মহাশক্তি_প্রেম একতার মূল স্তর, নীতি পুণ্য একতার প্রাণ ;--বুঝিতেছেন--এক সমরে পৃথিবী হইতে পাশব শক্তির আদর উঠি যাইবে,-নীতির আদর সর্বত্র ব্যাপ্ত

নব্যভারত।

উকি

(১ম খণ্ড, ১ম রংখ্যা |

৬৯৯ সপ পা তপ্ত পা প্রা

--শোঁণিতপাত--অত্যাচাধ-_হিংসার চরমফল যৃদ্ধবি্রহ এক সময়ে পৃথিরী হইতে পলায়ন করিবে ইহা বুঝিয়া নব্য- ভারত দিনদিন সেই বলে রলীয়ান হই- তেছেন। অনেকে মনে করিয়া থাকেন, নব্যভারত; “নব্য ইটালী" একই প্রকার আমরা বলি 'নব্যভারত" 'নবা ইটালী, এক প্রকার নহে “নবা ইট[লীতে, নীতির আদর থাকিলেও অস্ত্রের সহিত একেবারে ইহার সম্বন্ধ রহিত হয় নাই-কিস্ত অস্ত্রের দুঙ্িত 'নব্যভারতের? কোন সম্পর্ক নাই): 'নবাভারত” একমাত্র নীতি পুণোর উপর ঈপ্তারম!ন হইরা পৃথবীর চক্ষকে আকুঃ করিতেছেন। 'নব্যভারত” শরীরের বলের আদর দিন্ন দিন বিশ্বৃত হইর1 জ্ব/মবলে ধর্মবলে বলীয়ান হইতেছেন। 'নব্য ইটালীর' আবার পন্তন হইতে পারে. আবার অত্যাচার আপিয়৷ ইহ'ফে অ'ক্রমণ করিতে পারে, কিন্ত জশ্রকে ধনাবাদ দেই, 'মবাভারত যদি অটলভাবে অ'পন লক্ষ্য পথে অগ্রৰর হইতে পারেন, তবে ইহার সে পতনের আর সম্ভ!বন| নই | মাটি, মিনি 'নরা ইটানীর? অধিনেত। ছিলেন-_ ধরং ঈশ্বর 'নবা ভাতের" নেতা . পতন ভারত হইতে কতারঁরে। একবার কল্পনা কর। নির্বোধ ভারতবাসি! কেন বালকের ন্যায় ম্যাটসিনির অভুযাথান কামনা করিয়া সময় ক্ষেপণ করতেছ। সমরের ভার হৃনয়ঙ্ম করিয়া! জগদীশ্বরের শুভাশীর্বাদ শিরে ধারণ করিয়া! একবার মাভৈঃ মাভৈঃ রবে “নব ভাঁরতের' সেবা কর দেখি, নীতি পাও কি না, শক্তি পাও কিন, একতা পাও কি.ন]।

নব্যভারত' নব বেশে দেশে নব যুদ্ধ ঘোষণায় প্রবৃত্ত হইয়াছেন। এই সময়ে বদি

জ্যেষ্ঠ, ১২:৯০ | )

কেহ অগ্রনর হইয়া 'নব্য ভারতের” গুপ্ত অন্তর কি, কথা জিজ্ঞাসা! ক্রেন, তবে আমরা! তাহাকে মির্ভয়চিত্তে বলিব-- নবাভারতের এক হছত্তে প।বন্রতা) অন্য হস্তে উদরতা--মন্তিকে জ্ঞান ন্বাধীন চিন্তা, হুদ্রয়ে প্রেম,_আর. সমস্ত শরীরে ওত€প্লোত ভাবে মানন্ধের রাজা স্বয়ং ঈশ্বর অধিক্িত। "নব্য ভারতের” শক্তির পপ্সি- মাণ কে করিতে অগ্রসর হইবে? ভার" তের পর্ব স্মৃতি ভারতকে এই মন্ত্রে দীক্ষিত করিয়াছে ঈশ্বর বিশ্বাসই সকল শক্তির মল। ভারতবর্ষের যাহারা এই মন্ত্র জন্বী- কার করিল--তাহাঁরাই পাপে ডুবিল- অত্যাচারে মরিল- পৃথিবীতে কলঙ্কের পৃতিগন্ধযুক্ত মিশান তুলিয়া রাখিয়া অপ- স্কত হইল “নধ্যভাঁরতে” যর্দি প্রকার লোক থ;কেন, তবে 'নধাভারত” সতর্ক- ভাবে, যু সহকারে, প্রেমের দ্বারা তাহ'- দিগকে আবার লক্ষ্য পথে আনিবেন, একদ্রনকেও অন্য পথে যাইতে দিবেন না। 'নব্যভারত, জানেন, কগীরের এক অঙ্গের পতনে আন্য অঙ্গের বল ভাস হয়। 'নব্যভারতের+ হাদয়ে মনে ত্বণ! থাকিবে না, জহঙ্ক,র থাকিবে না;_উদারনভ'বে বিনীত অন্তরে মব্যভারত” সকলের সেবা করিবেন ঠাঁটায় 'নব্যভারত” বিচলিত হই- বেন না, নিন্দার কর্তবান্রষ্ট হইবেন নাঃ_- গুপ্ত মন্ত্র সাধনে রত থাকিলে পৃথিবীর সকলকে তুস্ছ করিতে পারিবেন “নব্য ভারত” জানেন, অন্তরে বাহিরে এক থাকাই মহত্”--কপটতা সর্বনাশ্ের মূল যেখানে অন্তরে কিছু নাই, সেখানে বাহিরে আচ্ছাদন দিয়া ঢাকিয়া জগতের

প্রশংসা পাইলেই উন্নতি লাভ কর যায়

মব্যভারত

না। নব্যভারতের আর কি লক্ষ্য আছে, তাহা বর্তমান সময়ে জগতের নিকট অপ্রকাশিত থাক।ই ভাল; বুথা আঁড়- স্বরের প্রয়োজন নাই

অনেকে মনে করিতে পারেন, নব্য ভারতের” ভাষ। রাঙ্গাল! ভাষা হইল কেন? যে চেশে বহুভাষ! প্রন্নলিত, সে দেশে ইহার এক ভাষা হইল কেন? একথার উত্তর এই-_বাঙ্গাল৷ ভাষাই 'নব্যভারতের” ভাষা আজ ন। *হইলেও কালে হইবে ভাই, ভুমি ইংরাজি ভাষার উন্নতির চেষ্টায় রত হইয়। দিন দ্দিন উন্নত হইতেছ, তোমার নাম সংবাদপত্রে বিষোধষিত হইতেছে, তুমি কি আতম্মাভিমানকে বিসর্জন দিয়া কখ- নও বাঙ্গল। ভাষার গভীরতা অন্গভব করিয়াছ--ইহার উন্নতির পরীক্ষ))] করি- যাছ--আর ভারতের সমস্ত ভাষার হীনা- বস্থ। হদয়জম কগিতে পারিয়াছ? যদি তেয়।র পক্ষে এসকল সম্ভব .হইয়। থাকে, তবে তুমি তাই দরিদ্রের এই কথাটীকে শ্মরথ করিয়। রাখ,--বাঙ্গাল। তাষাই কালে সমন্ত ভারতে পরিব্যাপ্ত হইবে। যে হিন্দুস্থানী বাঙ্গালীর সহিত একত্রে ছয় মাস কালযাপন করিয়াছে, সে হিন্দুস্থানী আর বাঙালীর সহিত হিন্দিতে কথ কহিতে ভালবাদে না। গবর্ণমেন্টের সাহ'য্যে ভারতের এমন স্থান নাই; যেখানে রাক্গ'লীর গমন হয় নাই; স্থৃতরাং ভারতের এমন স্থান নাই, যেখানে কোন না কোন লোক একটু বাঙাল না জনে তারপর বাঙ্ছালা ষে ভাষা হুইতে উত্পন্্, ভারতের আর প্রায় সমস্ত ভাষাই সেই মূল সংস্কৃত ভাব! হইফ্রে উদ্দপন্ন; না হইলেও মুলের সহিত অনেক

€.

নবাভারতা

সাদৃশ্ত আছে! এই কারণে সহজ জ্ঞানে বুবা যায়, বাঙ্গাল৷ ভাষা; কালে ভারতের ভাষা হইবে। জাতীর ভাষ| ভিন্ন কেন জাতির উন্নতি হইতে পানর নাঃ ভারতের সেই পরিমাণে উন্নতি হইবে, যে পরি- মাণে ভাষার উন্নতি হইবে এক দেশে বিভিন্নধশ্ম প্রচলিত থাকিলে যেমন একতা অসম্ভব, একাদশে বিভিন্ন ভাষা প্রচলিত থাকিলেও সেইরূপ একত| অসম্ভব প্রচীন ভারতে এক সংস্কৃত ভাবা প্রচলিত ছিল বলিয়াই ভারতের হৃদয়ে শহ্বদয়ে মিল ছিল এক প্রকার স্কর, এক প্রক'র অভাব, এক গুকার ধরন, এক প্রকার ভাষা সকসই একতার জন্য চাই ধাহার1 বলেন, ইংরাজ- শাসনে সমস্ত 'ভারভ শাসিত, এক শাঁস- নাধীন সকলের অভাবই এক প্রকার, অত- এব ভারতের একতার জন্য ধম্ম, ভাষ| প্রভৃতির একতা চ[ই নাই ; পৃথিবীর ইত্তিহান তহ'দের কথাকে নিতান্ত অসার বলিয়া প্রতিপন্ন করিতেছে 14স্লৃতরাং আমর! আর এই কথ|র অযৌক্তিকত! প্রমাণ কছিতে চাহি না। একতার মুল কি, সম্বন্ধে ধন্ম জগতের ইতিহাস, ভাষা জগতের ইতিহ'ন স্ুম্প্ভাবে উদী- হরণ দিতে বর্মন রহির'ছে। তবে একথা আমরা! বলি না যে, পৃথিবী কে'ন দেশেই এনত্য অপ্রমাণীকৃত হয় নাই। এক ধর্ম এবং এক ভাষা প্রচলিত হওয়। সমর সাপেক্ষ বটে, কিন্ত পৃথিবীতে কোন্‌ করধ্য একদিনে সম্পন্ন হয় ? বাহার! মানবজাতির অভ্যুদয়ের মূল ইতিহাস নিবি চিত্তে অধ্যয়ন করিয়াছেন, তীহা- রাই জানেন--এক ধর্ম, এক ভাষা ভিন্ন কখনও কোন দেশে এক হ্বদয়ত প্রতি-

(১ম খণ্ড, ১ম লংখ্যা

ষিভ হইতে পারে না। যি ভারতে ইহা অসম্ভব হয়, তবে ভারতে একতাও অপস্ভব॥ এক গষ্টধর্শ ইংরাজি ভাষ। পৃথিবীর অসংখ্য জাতিকে কি প্রকারে, একতান্ত্রে বাঁধিতেছে, একবার পরীক্ষা করিয়া দেখ ধাঁহার! জাতীর ভাষার উন্নতি ধন্মে।ন্সতিকে লক্ষ্য মা! করিয়। কেবল রাজ- নীতির অনুনরণ করিয়! পরাম্থুকরণে রত' অ'ছেন, তাহাদিগকে আমরা পগুশ্রমে রত দেখি সমত্রে সময়ে অশ্রপাত করিয়। থাকি। আমর। বলি, ভারতে ভাষার একতা এবং ধশ্মের একতা সমর সাপেক্ষ হইলেও একে- বরে অসস্তব নহে; যদি অসম্ভব হইত, তবে ভারতকে আঙ্ অমরা 'নব্যভারত নামে ভভিহিত করিতে প্রয়াম পাইতাম না। কেহ কেহ মনে করেন, ইংখার্সি ভাষাই কালে ভারতের ভাব! হইবে; ইহা যনে করিয়া অসংখ্য ভারত সম্ত!ন ইংরাজির সেবার জীবন ক্ষ করিতেছেন, শী ভাষার কাল নিক অভাব দুর করিতে চেষ্ট! করিতেছেন ইহারা জানেন না, জাতীয় ভাষ। ভিন্ন কে!ন ভাব। হৃদয় স্পর্শ কগ্িতে পাবে না, হৃদয়" স্পর্শী ভাব| না হইলে ছোট বড় সকলের তাহা ভাল ল'গে না,-সকলে তাহ] গ্রহণ করে না। অসংখ্য নর নারী যে ভাষা গ্রহণ না| করিল, সে ভাষাও কি জাতীয় ভাষ।--একতার ভাষা হইতে পারে ? এই' জন্য আমরা বলি ইংরাজি ভাষা, নব্য- ভারতের শিক্ষার বস্ত হইলেও, হৃদয়স্পর্শা-_ একতার মধ্যবিদ্ধু হইবে না। এই জন্য আমরা মনে করিয়া থাকি, যাহার! ইংরা- জির উন্নতির চর্চায়'রভ আছেন, তাহারা! কেবলই ভল্মে ত্বত নিক্ষেপ করিতেছেন এই কাল্পনিক একতার কাল্পনিক পথ পরি*

ত্যাগ করিয়া! ইহার! যদি জাতীয় ভাষার,

উন্নতি সাধনে রত হইতেন, তবে ভারতের কত অভাষ ধর হইত! বাক্গাল| ভাঁষা অতি অল্প সময়ের মধ্যে যে প্রকার উন্নতি লাভ করিয়াছে, এই ভাষ।ই যে কালে ভারতের তাষ। হইবে, দে বিষয়ে বিন্দুমাতও সন্েহ নাই। বর্তম।ন সময়েই বাঙ্গালা ভাষার কেন কোন পুস্তক ভারতের অন্যান্য ভাষায় রূপান্তরিত হইতেছে কেধল অনুবদে যখন লোকের তৃষ্ণ। নিবুত্তি হইবে না, তখন এই ভাষা শিক্ষা করিতে সকলেরই কুচি হইবে স্ুতরাঁং বাঙ্গাল! ভাষ। কালে কেবল বঙ্গদেশেই ব্য।প্ত হইয়] থাকিবে না ক্রমে ক্রমে সমস্ত ভারতে বিস্তৃত হইবে যত দিন তাহা ন। হয়, ততদিন ভারতে একতা অসম্ভব এই জন্য “নব্যভাঁরতের” ভাষ। বাঙ্গল। ভাষা হইল, কালে এই হদয়স্পর্শা তাষ। ভারতের নরনারী সকলের হ্ৃনয়কেই স্পর্শ করিবে,ক!লে সকলের মুখেই এই এক ভাষ! শ্রুত হইবে 'নব্যভারতের এই অভিনব ভাষা ভারতকে সজীব করিবে-- এক করিবে, প্রাণে গ্রাণে নিলাইবে।

আর একটী কথা বলা হইলেই আমা দের বক্তব্য শেষ হয় “নব্যভারতের” কাল দশ বৎসর পূর্ব হইতে ধর! যায় কিনা! আমর) বলি, তাঁহ। যায় না। যখন স্তৃপ্তো- খিত ভারতবাসী ইংরাজকে অত্তরে অজ্রে ভারতবর্ষ হইতে বহিষ্কৃত করিয়া দিবার কামন। করিত, মুখে 'ভারতজয়, ভারতজয়' গান করিয়। ম্থখ পাইত, বিদ্যাশিক্ষাকে চাকুরী বা দানত্বের কেন্দ্র বলিয়া! তাহার অনুনরণ করিত, স্ত্রীশিক্ষাকে ত্বণা করিত; বাঙ্গালী বাঙ্গাল! ভাষাকে বিদ্বেষের চক্ষে ' দেখিত, পরান্থকরণে জীবনকে ভূবাইয়। সুধী

মধ্যভারত.1

হইত

হইত, ধর্খের নামে উপহ'স না করিয়া জলগ্রহণ করিত না, একজন আর এক- জনকে কীর্দিতে দেখিলে হাস্য সংবরণ করিতে পারিত না, ভারতবাসী দেশহিতৈষী নাম গ্রহণ করিত কেবল যশম!নের জন্য, পরো” গকার করিত উংরাজের ক্লুপা পাবার কাটাকটী করিয়া মরিহ, পে সমরকে “নব্যভারতের, কাল বলিম্না নিন্দেশ করা যায় না। বর্তমান

জন্য,--এবং ভাই ভাই

সমনরে অর ভ!রতের সে সময় নাই, এক্সণ

ভারত জাতীয় ভাঁবের জাতীঘ ভ!ষার আদর শিথিতেছেন,এক হৃদয়ের দ্ুতথে অন্য হৃদয় ক.দিতেছেং জাঁতিভেদকে নর্ব- নাণের মূল বলিয়া বুঝিতেছেন, হবাধীনতার আদর বুনিতেছেন, জ্ঞানের মর্যাদা বিদ্যার জন্ত বিদ্যার আদর করিতে শিখি- তেছেন। আর মুখে “জয় ভারতের জয়ঃ বলিয়া ইংরাজকে ,তাড়াইতে ভারত- বাসীর ইচ্ছা নাই ;--এক্ষণ ভারতবাসী বুনিতেছেন_আরও অনেককাল ইংরা- জের নিকট শিক্ষা করিতে হইবে ভারত- বাদী এক্ষণে ভ্রীশিক্ষার আদর বু'ঝতে- ছেন, ধন্থের নামে আর উপহাস করিতে

ইচ্ছা নাই”_কাহারও কৃপা! পাইবার জন্য

বা! যশের জন্য পরোপকার করংকে ঘ্বণার কার্ধ্য বলিয়া বুকিতেছেন। এক্ষণে বিদ্া। শিথিয়! ভারতবাঁী দেশের উপকার করিতে ধাবিত হইতেছেন ;--বিলাত হইতে শিক্ষা- লাভ করিয়া ভারতে আসিয়। জাতীয় ভাব ভাষার উন্নতির চে্। করিতেছেন। এই সময়ে ভারতের যে কি এক অপরূপ শোভ। হইয়াছে, তাহা সকলেই বুঝিতেছেন। এই অভিনব সময়কেই আমর! “নব্যভারতের" সময় বলিয়। নির্দেশ করিলাম। স্বায়ত্ত-শাসনের

মব্াযভারত

আন্দোলনে ভারত দেখাইয়াছেন, ভারত রাজনীতি চায়,_-ভারত একতার জন্য উৎ- স্থক। ফৌজদারী কার্যবিধির ফিল সম্ব- স্বীয় আন্দোলনে ভারত দেখিয়াছেন, ভার- তকে আর পদতলে রাখিতে উদ্ারচেতা ইং- রাজগণের ইচ্ছা নাই,_-ভারতও নানারপে দেখাইয়াছেন ভারত আর বিস্ছিন্ন নাই - একের ন্ুখে অনোর হৃদয় ফুল্প হয়, একের ছুঃখে অন্যের হৃদয় বাথিত হয়। ভাষার আদরের সহিত সংবাদপত্রের আদর বাড়িতেছে, ভারত আলশ্ট পরিহার করিয়! কর্যাৰক্ষ হইতে প্ররাসী হইয়াছেন। প্রজা ভূমাধিকারীর বিশের আন্দোলনে ইহা স্ুষ্পষ্ইভাবে প্রমাণীকৃত হইয়াছে, ভারতে দুঃখী প্রজাদের জন্য কারবার অনেক লোক আছে। আরও অসংখ্য ফারণে আমরা উদ্ারচেত। মহামতি লর্ড রিপণের শাসন কালকেই *নব্যভারতের” কাল বলিয়! নির্দেশ করিলাম। ইঙ্বার ন্যায় উদ্দারনৈত্তিক শাননকর্তা আর কখনও ভারতবর্ষে পদার্পণ করেন নাই। ইনিই যেন ভারতকে নবভূষণে সাজাইর] তুলি- তেছেন।

'নব্যভারত” স্ুসময়ে পৃথিবীর নিকট পরিচিত হুইলেন,_--কতকাল ইহ!র রাজত্ব

(১ম খণ্ড, ১ম সংখা |

থাকিবে, ঈশ্বরই জানেন! "নব্যভার- তের” উন্নতিতে 'যীহারা আনন্দিত হন; স্তাহার অবস্ঠ মব্যভ।রতের উন্নাতির জন্য প্রাণপণ করিবেম। ইস্থার অবমতিতে যাহার! আনন্দিত হন, তাহারা অবশ্তী ইহার অনিষ্টের চেষ্টা করিবেন। 'নব্যভারত, ন্ুখেও অধীর হইবেন না, ছুঃখেও বিষ হইবেন মা। ধীরচিত্তে বীরের ন্যায় 'নবাভারত” কর্তবা সাধনে রত থাকি- বেন। সত্য পৃথিবীতে জয় যুক্ত হই- বেই হইবে 'নব্যভারত”, যর্দি সত্য প্রচার করিতে পারেন, তবে ফেহই সে সত্যের অপলাপ করিতে পারিবে ম1। মিথ্যা জগতে কখনও স্থ'মী হুইবে না, স্তুতরাঁং নব্যভারত যদি মিথ্যা প্রচার করেন, তবে তাহাও কেহ ধরিয়া স্থায়ী করিতে পারিবে না। বন্ধু বান্ধব সকলে 'নব্যভারতকে আশীর্ধ(দ করুন. তাহাদের ঈশ্বরের কৃপা মস্তকে ধারণ করিয়া উদার- ভাবে 'নব্যভারত' জগতে সত্য প্রচ!রে রত থাকুক সকলে আশীর্বাদ করুন, ম্বাধীনত।, পবিত্রতা উদ্ারত: ইহার মূলমন্ত্র হউক 7-_" একতা- শাস্তি এবং সাম্য ইহার চরম লক্ষ্য হউক |

জীবন-গতি নির্ণয়

( &1) 6%1)17816101) 01 1006 90178071691 1৮৩ 91116)

প্রথম অধায়।

মনুষোর স্বাধীন উচ্ছ] |

06801001950 £9507160 10126 13107170501 279 719726107৬ 0616101060 97 (190 ৮০010011411) 20010) 01121055000 61179 01060109$1097766 01 000. 01705 095 11) 0৬০1 8০০], ১০708 01700 011 ০৮*1185 216 1১060 1১5 06960. 1615 £0£ 0 €০ 08087 1) 110%/ [0 900]).06 (110.9081017586190) 15 09৪. এ০ দা, 10101060,

আমরা বহির্জগতৈ যে সকল পদার্ নিরী- ক্ষণ করি, তাহারা সকলেই কোন না! কোন নিপ্দি্ এবং অপরিবর্ভমীয় নিয়- মের অধীন রহিয়াছে চন্দ্র, স্র্ষয এবং অপরাপর গ্রহ উপগ্রহ সকলই নিদ্দি নিয়মা্সারে আকাশমগুলে পরিভ্রমণ কৰি- তেছে। বৃক্ষ, লতা, ফল, ফুল, সকলই মিদ্দিই নিরমে উদ্দপপন্ন পরিবদ্ধিত হই-

তেছে। পৃথিবীস্থ জীব জন্তর শারীরিক |

কার্যকলাপ, তাহাদিগের ক্ষুধা তৃষ্ণা নিদ্দি্ নিয়মাবলীর দ্বারা পরিশাসিত হইতেছে বিশাল বিশ্ববংনার একটী বুহৎ যন্ত্রের ন্যায় বিশ্বনিঃস্তার অলঙ্ঘ্য নিয়মে অবিশ্রান্ত ঘূর্ণ মান হইতে হইতে ক্রুমেই অবস্থাস্তর প্রাপ্ত হইতেছে ।-__-গভীর জলরাশির মধ্য হইতে দ্বীপের উৎপত্তি হইতেছে, আবার পর্ব কীর্ণ স্থান সকল ক্রমশঃ সাগরগতে বিলীন হইয় যাইতেছে

কিন্ত *বহির্জগতের এই সকল পরি- বর্তনই কি কেবল জগণ্পিতার অখও- নীর এবং অগ্রতিহভ নিয়মের অধীন রহিয়াছে ? অন্তর্জগিতের পরিবর্তনসমূহ

মানবঙ্গীবনের কর্ধকলাপের মধ্যে কি কোম মিদ্দি্ মিযমাধলী* লক্ষিত হয় না? মানবজীবম কি কেবল -ঘটনার জোতের দ্বার পরিচালিত হইয়া অদ্য রজি নিংহানন লাভ, ফল্য বৃক্ষতল আশ্রয় করে?

ফর1শিদেশের ,যোড়শ লুইয়ের শির- চ্ছেদম, পতিপ্রাণা, সম্ভান বত্সলা, কোমল হৃদয়া রাজমহিষী মেরি আন্টক্লনেটের প্রাণদণ্ড, সমস্ত ইয়ুরোপের ভীতিস্থান বীরচুড়ামণি নেপোলিয়নের কারাবাস মৃত্যু কি আকশ্সিক দৈব ঘটনা বলিয়া ব্যাখ্যাত হইতে পারে? বর্ধর জাতি কর্তক রোম রাজ্যের বিনাশ, অর্জুন কর্তৃক ত্রিভুবনবিজ্ঞর়ী ভীম্ম কর্ণের পরা. জয়, সিপিও হস্তে কার্থেজের বীর- গৌরব হানিবলের গৌরব বিচুর্ণন, এই সকল এতিহাসিক ঘটনার মধ্যে কি কার্ধ্য কারণ শৃঙ্খল লক্ষিত হয় না? বস্ততঃ বিজ্ঞানের চক্ষে, দৃষ্বি করিলে প্রত্যেক এঁতিহাদিক ঘটনার মূলে সুস্পষ্টরূপে অনিবার্ধ্য কারণ সকল লক্ষিত হইয়াথাকে। উদ্ভিজ্জ জগতে

কি কোন. নিন্দিই নিয়মের অধীন নহে? যেমন বীঙ্গ হইতে অঙ্কুর জন্মে এবং

1

১৩

অস্কুর ক্রমশঃ বৃদ্ধি প্রাপ্ত হইলে বৃক্ষের উৎপস্তি হয় কার্ধযজগতেও সেই প্রকার ক্ষুত্র ক্ষুদ্র এবং অমম্থভবনীয় ঘটনা হইতে অতি বৃহৎ ব্যাপার সকল সমুখ্পঞ্জ হুইয়। থাকে কার্ধ্য কারণ শৃঙ্খল ষে কেবল জড়জগতের পদার্থ সমূহের মধ্যে নিহিত রহিয়াছে তাহা নহে; এঁভিহ'সিক ঘটনা 'সকলও কাধ্য কারণ শৃঙ্খলে আবদ্ধ হইয়। রহিয়াছে? কি জড়জগণ্ কি উদ্ধি্জ জগৎ, কি কার্ধটজগৎ্, সকলের মধ্যেই অলজঘ্য নিয়ম, ফলাফলের শৃঙ্খল! প্নিয়মিত পরিবর্তন, অবিশ্রাস্ত উন্নতির মোত পরিলক্ষিত হইতেছে কি দার্শ নিক, কি ইতিহাসবেত্বা সকলেই মানব- 'অগুলীর সমগ্র কার্য্যপরম্পরার মূলে কারণ- শৃঙ্খল নির্দেশ করিতেছেন। কিন্ত জুঃখের বিষয় এই যে, অনেকানেক চিস্তা- শীল পণ্ডিতগণ অধ্যাত্ম-রাজ্যের নিয়ম সন্বদ্ধে চিরাক্বতা বশতঃ ইদৃশ ভ্রমজালে নিপতিত হইয়াছেন যে, তাহার মানব মগুলীর কাধ্যপরম্পরার মূলে কারণ শৃঙ্খল দর্শন করিয়া, অবশেষে মনুষ্য-মনের স্বাধীন কি্ব। শ্বতস্ত্র ইচ্ছার অস্তিত্ব সম্বন্ধে সন্দেহ প্রকাশ করিয়াছেন এই শ্রেণীর দার্শনিক- দিগের মতে মন্ৃষ্য সম্পূর্ণরূপে বাঙ্থ্যিক অবস্থার দাস; ভাহার মনোমধ্যে কোন প্রকার স্বাধীন ব1 শ্বতস্্র ইচ্ছার সঞ্চার হইবার সম্ভাবনা নাই। অতএব মানব- জীবনের গতি নির্ণর করিবার পূর্বে, মনু- য্যের স্বাধীন ইচ্ছা আছে কি না, এইটা নিরূপণ কর! নিতান্ত প্রয়োজনীয়; কেন না, যানব মনের ইচ্ছাই জীবনগতি নির্ধারণ করে।

অবস্থাবাদী পণ্ডিতগণ বলিয়। থাকেন

অবাভারত 1

এপস পর

€১ম খণ্ড, ১ম সংখা |

যে, মন্য্যের ম্বাধীন বা শ্বতন্ত্র ইচ্ছঁনাই; যে বহির্জগঞ্চ দ্বারা তিনি পরিবেষ্টিত হইয়া রহ্িয়াছেন, সেই বহির্জগতের কোন বস্ত কিশ্বা কোন ঘটনা বা! কোন অবস্থা, অথব! বহুল বস্তু ঘটন1 বা! অবস্থার সমষ্টি তাহার অস্তরের মধ্যে যেভাব উৎপাদন করে, সেই ভাবের দ্বার! পরিচালিত হইয়! ছিনি কোন ন! কোন কার্ধ্য করিতে ইচ্ছা! করন এই প্রকার যানব মনের প্রত্যেক ইচ্ছা যখন কোন না কোন ভাব সম্ভৃত, এবং সেই ভাব সকল যখন তাহার চতুদ্দিকস্থ বহির্জশতের পদার্থ বাঘটনা অথবা অব- বার ফলম্বরূপ, তখন এই অনিবার্ধ্য সিদ্ধাস্ত অবশ্যই করিতে হইবে যে, মন্ুয্যের মধ্যে কোন প্রকার শ্বাধীন ইচ্ছার বর্তমানত! সম্ভবপর নহে ইধ়ুরোপীয় দার্শনিক পপ্ডিতগণের মধ্যে স্পাইনোজা মনুষ্যের শ্বত- স্ত্েচ্ছা সঞ্চ'লন ক্ষমতা সম্পূর্ণরূপে অন্বীকাঁর করিয়াছেন তিনি (ম্পাইনোজ। ) বলি- যাছেন যে, মানব মনে কোন প্রকারেই স্বাধীন কি শ্বতন্ত্র ইচ্ছার উদয় হইতে পারে না। বর্তমান মুহুর্তে কোন মনুষ্য যে কোন কার্ধয করিতে ইচ্ছা করেন, তাহা তৎ- পূর্ববর্তিনী মানসিক অবস্থার ফল, এবং এই শেবোক্ত নানসিক অবস্থা আবার এভৎ- পূর্বববর্িনী মানসিক অবস্থার ফল, এই প্রকার ক্রমান্বয়ে দেখিতে গেলে, সহজেই বোধগম্য হইবে ষে, মানব মন জন্ম হইতে ক্রমান্বয়ে যে সকল পদার্থ,ঘটনা, ব। অবস্থার

ংসর্গ প্রাপ্ত হয়, সেই সকল পদার্থ, ঘটনা বা অবস্থা তাহার মনের গতি নিরাপিত করে আমাদের দেশীয্ন পুরাতন দার্শনিক পগ্ডিতগণের মধ্যে কেহ কেহ এই প্রকার মত পোষণ করিতেন) এবং অধৈতবাদী সম্প্রদায়

জোষ্ঠ, ১২৯০)

ঈদৃশ জি অবলম্বন করিয়াই বলিতেন যে, মন্ুমা যেকোন কার্ধ্য করেন তাহা ঈশ্বর

কর্তৃক পরিচালিত হইয়াই করেন £ কেননা

তাহার নিজের কোন ন্বাধীন ইচ্ছা। নাই

যে সকল দার্শনিক পণ্ডিতগণ এই প্রকারে "মানব মনের শ্বাধীন কিবা শ্বতত্ত্র ইচ্ছার অন্তিত অর্শশকার করিয়াছেন, ভাঙাদিগের মত আমরা সম্পূর্ণ ভমাত্মক বলিয়া অগ্রাহ্য করিতে পারি না। ইহা অবশ্ুই, শ্বীকার করিতে হইবে যে, ইহাদিগের মত সম্পূর্ণ সত্য না হইলেও আংণিকরূপে সত্য বলিয়। প্রতিপন্ন হইতে পারে 1 .আমাদিগের চতুর্দিকত্থ বহির্জগতের ঘটনা, অবস্থা কিনব পদার্থলমূহ নিয়তই ফে আমাদিগের মনের ভাব পরিবর্তন করিতেছে, তদ্ধিষয়ে অনু- মাত্রও সন্দেহ হইতে পারে না। জীবনের প্রতোক মুহূর্তে আমরা দেখিতেছি যে. বহি- জগতের পদার্থ ঘটন। নিচয় মনোমধ্যে নানাবিধ ভাব আনয়ন করিনা ভগ্ভাঁব- জনিত ইচ্ছা উত্পাদন করিতেছে। স্ুশী- তল প্রভাতসমীরণ শান্তিপূর্ণ ভাবের উদ্রেক করিয়। মানবমনে তন্থুলক গতি প্রদান করিতেছে ; আবার মধ্যাঙ্ক স্যর প্রচণ্ডে- তাপ সেই ভাবের অবস্থাস্তর রয়! মনের গতি পরিবর্তন করিতেছে সাযস্তন নিস্ত- কতা গাতীরধ্য মন্গষ্যমনের বর্তমান গতি অবরোধ পূর্বক গত জীবনের স্ুখ ছুঃখ স্মতিপথে আনয়ন করে; আবার চন্দ্রমার স্থবিমল জ্যোতি অস্তরাস্মাকে প্রফুল্ল করিয়। মনসিক গতির চঞ্চলত। সম্পাদন করে। পতিপ্রাণা সাধবীর হৃদরপ্রফুললনকর মুখ- কমল দর্শনে মন এক অভ্ভ্তপূর্ব পবিত্র

প্রীতির উচ্ছ্বাসে উচ্ভুসিত হইয়া, সাধু-ইচ্ছা

এবং সঙ্গতি গাণ্ড হয়ঃ আবার বিশ্বাস-

নবাভারত 1

$&.. শে

ঘাতিনী; ধর্মত্রষ্ট। কুলট রমণীর দর্শন হাদ- য়কে কলুষিত করিয়া, মনোমধ্র্যে অন্যবিধ ভাকের সধশর করে বদ্ধুসম্মিলন, মন্ুষ্যকে- প্রফুল্লতা, প্রদান করে, এবং অজ্ঞাতসারে চিত্তের উপচিকীর্ধ! বৃত্তিগুলিকে চঞ্চল করিয়া তুঙ্গেঃ পক্ষান্তরে শক্রুসমাগম. বিদ্বেষ মন্তুত ঘোর বৈরনির্ধাতন-বাসনার উদ্দ্েক করিয়া, তাহার মনে বিপরীত ভাব উপস্থিত করে। পরলোকগতা ন্নেহময়ী, ননীর আলেখ্য নিরীক্ষণে হৃদয় গাঢ় ভক্তি. কৃত- জ্ঞত। রদে পরিপ্লুত হয়, এবং হৃদয়ের তৎ্সাময়িক তাদৃশ ভাবসম্ভৃত ইচ্ছা মনের গতি উত্পাদন করিয়৷ থাকে ; কিন্ত অপর পক্ষে সান্টনির বক্ষে-বিরাজিতা ক্লিওপেটটার চিত্রপট দর্শনে হাদয় কলস্ষিত হয় এবং তাৎ্কালিক অবস্থার অনুষায়িনী ইচ্ছা! মনের গতি নিরূপণ করে। এই প্রকারে বহির্জ- গতের বিশেষ বিশেষণ দৃশ্ত যে, সময়ে সময়ে মনের গতি পরিবর্তন করে,তাহা, কোন্‌ চিস্তা- শীল ব্যক্তি অস্বীকার করিতে পারেন ? আমা- দের জীবনের দৈনিক ঘটন! কি সপ্রমাণ করে না যে, এক অবস্থায় নিপতিত হইয়! মান্থুষ মহধিদিগের বাঞ্ছনীয় ছুল্নভ জীবন লাভ করে এবং প্রতিকূল অবস্থা দ্বার শাসিত হইয়া পশু-জীবন প্রাপ্ত হয়? সৌভাগ্য এবং এশ্বর্যযমদে প্রমত্ত হইলে মন গর্বিত হয়, দুর্ভাগ্য এবং দরিদ্রতায় মনের গতি নিস্তেজ হইতে থাকে | শুকদেব, প্রহলাদ। চৈভগ্, ষীশুধৃষ্ট, লুথার প্রস্থৃতি মহাস্ব্াদিগের জীবন- চরিত পাঠ কিম্বা শ্রবণ দ্বারা মন পহিত্র- গতি প্রাপ্ত হয়; অন্যদিকে পাপাত্মা রোমীয় সআাটু নিরে কিন্বা বঙ্গীয় নবাব সিরাজ উদ্দৌলার কুক্রিয়। শ্রবণ করিলে হৃদয়ের মধ্যে ঘোরতর ত্বণার উদ্রেক হয়।

১৯

: এই প্রকারে বাহ্যিক অবস্থা দ্বারা যে মানব মনের গতি নিরূপিত হয়, তাহা সহু- জেই প্রতীয়মান হইতেছে। কিন্ত এখন এই প্রশ্নের উদ্দয় হইতেছে যে, ম'্দব মনের গতি কি কেবল বাহ্যিক ঘটন] দ্বারাই নিরণাত হয়, না মনের এমন কোন আভা- স্তরিক শক্তি আছে, যদ্দারা বহির্জগতের শক্তি সকল অতিক্রম করিয়া মন আপন শ্বাতন্ত্র ভাব রক্ষা করিতে পারে? এত সম্বন্ধে ইতিহাসবেত্বা পণ্ডিতবর বকৃল যাস! বলিয়াছেন তাহার গুল মন্ম এই ;--“এক

নবাভারত |

(১ম খণ্ড। ১ম রংখ্যা |

হয়, তাঁহ! সকলেই স্বীকার করিবেন; কিন্ত মানব মনের কোন অরস্থায় বহি জগৎ তছ্ছুপরে ক্কি প্রকার শক্ষি সঞ্চারন রূরিতে পারে, তাহা নির্ণর কুরিতে পারিলে, একদিকে যেমন মানব জীবনের গতি গির- পিত হইতে পারে, তেমনি অগ্ররদিকে মানবমগ্ডলীর স্বাধীন ইচ্ছ1! আছে রি না, তাহারও মীমাংসা হইতে পারে *

ইহা! বল! বাছল্য যে, মানব মর নিশ্েষ্র জড়পদার্থের স্তায় কেবল বাহ্যিক বল প্রয়োগ দ্বারা চলিত হুয় না। রহির্জগঞ্জ-

দিকে মানবমন শ্রীয় প্ররুতিগ্ত নিয়মের | সমুখিত শক্তি এবং মানব মনের আত্যন্ত- | রি অনুবস্তা হইয়| কার্ধ্য করে এবং বহির্জগতস্থ 508157558

কোন বল বা শক্তি বা আকর্ষণ ধর! অব- স্বাস্তর প্রাপ্ত না হওয়। পর্যযস্ত, প্রাগুক্ত গ্বীয় প্রকৃতিতে নিয়মানুসাঁরে প্বাধীন ভাঙব পরিবর্ধিত হইতে থাকে; অপরণিকে বহি- ্গৎও আপন ম্বাতীবিক নিষম!নুদ'রে নিয়ত কার্য করে। কিন্ত এই বহির্জগণ্চ গানর মনের সংঘর্ষণ লাভ করিরা মনের আত্তরিক রাসনা এবং পূর্বক মনুষ্যদিগের কার্ধা কলাপে সেই লংঘর্ষণ সম্ভৃত নুতন গতি প্রদান করিয়া থাকে; অর্থাৎ মাবগণেন কার্যকলাপ প্রহির্জগতের সংঘর্ষণ অভ'বে যে গণি প্রাপ্ত হইত, সেই গতি প্রাপ্ত না হইয়! বহির্জগতের দংম্পর্শে এক রূপান্তরিত গতি প্রাপ্ত হয়। এই প্রকরে মানবমগুলী বহির্জগতের গতির স্গপার্তর করে এবং রহির্জগ্ও প্রতোক মনুষ্যের মনের গতির অবস্থাস্তর করে; গ্রবং অবশেষে এই পারস্পরিক রূপাস্তরিত গতি হইতে সকল ঘটনার উৎপত্তি হুয়।” রক্ত রহির্জগৎ্সমুখিত শক্তি বা বল

বুদ্ধিবৃত্তিকে উত্তে ক্ষ :

1 1

উৎ্পন্ন হর, তাহাই মানব জীবনের গতি চিত্তা করিয়া দেখিলে বোধ হয় যে, গৃথিং বীর মহিত তদ্নুপরিস্থ পদার্থ সমূহের যেরূপ সম্বন্ধ, মামব মনের সহিত, অবস্থা বিশেষে। বহিজনতের প্রার সেইরূপ সম্বন্ধ বর্তমান রহ্িয়াছে। পৃথিবী বেরূপ তছুপরিস্থিত পদার্থ সমুদকে আকবণ করে, এবং তহুপরিস্থিত পদার্থ সকলও আবার পৃথিবাকে আকর্ষণ: করে, দেই প্রকার বাহর্জ॥ৎ মনের উপর এবং মন বাঁহজএতের উপর শাঁক্ত সঞ্চালন কারয়। থাকে কিন্ত পৃথিবীর আকর্ষণের বল তদুপপ্িস্থত সকল্‌ পদাথের আকর্ষণের বল্‌ অপেক্ষ। পরবলতর ; ন্ৃতরাং পৃথিবী তছু- পরিস্থিত প্রদার্থনমূহের নিকট পরিচালিত হয় না) কিন্ত তছুপরিস্থিত পদার্থ সকলই পৃথিবীতে নিপতিত হয়। এই প্রকারে যদি ইহ প্রতিপন্ন কর। যায় যে, মানব মনের আভ্যত্তরিক শক্তি বহির্জগতের শক্তি অপেক্ষা এত প্ররল যে, সেই আত্যন্ত'ররু শক্তি বহি" জগৎসমুখিত শত্তিতক পরাস্ত করিয়া আপন

দ্বাং। যে মন্গষা মনের গতি ক্ুপাস্তরিত | স্বাভাবিক শক্তি সংরক্ষণ করিতে পারে,

জ্যেষ্ঠ, ১২৯০ 1)

তাহ হইর্ে অন্ুষ্য যে স্বাধীন ইচ্ছ1 সণ লন করিতে সম্পূর্ণ সক্ষম,তদ্বিবয়ে অন্ধুমাত্রও সন্দেহ পাকে না। কেন না, পৃথিবী যেরূপ তছপরিস্থ পদার্থ সকল দ্বারা আকৃ্ হই- যাও আপন স্বাভ'বিক গতি সংরক্ষণ করিতে পারে, মনুষ্য মূনও সেই প্রকার বাহ্য্গ্- সমুখিত শক্তি কর্তৃক বিকৃত অবস্থা প্রাপ্ত না হইয়। আপনার স্বভাব রক্ষা কচিতে সক্ষম হয়) পৃথিবী সফল সময়ে এবং সকল অবস্থাতেই তছুপরিস্থ পদার্থ নমূহের আকর্ষণ পরাভব করিয়া আপন শক্তি রক্ষা করিতে পারে; কিন্তু প্রত্যেক মনুষ্য মনই যে আভ্যস্তরিক শক্তি দ্বারা রাহা- জগতের শক্তিকে পরাভর করিতে পারিবে, ইহা প্রত্যাশ! কর! যায় না। জনভেদে এবং অবস্থাভেদে মানব মনের আভাস্তরিক শক্তির তারতম্য রহিয়াছে নিদ্ধপুরূষ শুক- দেব যৌবন প্রারস্তেই বিষয় বসনা রিস- শর্জন পুর্র্বক বহির্জ,তের শক্তি হইতে আপ- নার হনয় মন নির্মক্ত করিয়াছিলেন, কিন্ত ফরাসি রাজ্য .ধিপতি, যশোলিদ্স, এবং গ্রভৃত্ব- লোলুপ নেপোলি*ন মৃত্যাকীলেও “আমী" দেরই জয়” এই বাক্য উচ্চারণ ক্ষরিয়! বিষয়- বিমোহিত মাননিক অরস্থার পরিচয় প্রদান করিলেন। মা।সডন্াধিপতি আলেকজাগার পরাজয় করিরার জন্য পৃথিবীতে আর রাজা নাই, ইহ শ্ররণ করিয়া অশ্রুবারি বিসর্জন করিয়াছিলেন, কিন্তু শক্র-দমনভাব-বিবর্জিত মহষি ঈশার অস্তরাত্মা হইতে মৃত্যুকালে ঈদৃশ মহৎ ভাব সমুখিত হইয়া! ছিল যে, তৎকালে তিনি সেই ভাব দ্বারা পরিচালিত হইয়া উচ্চৈ£ম্বরে 'রলিয়াছিলেন।_"পিত ! আমার শক্রদিগকে ক্ষম! কর, কেনম! তাহার] জানে না যে, তাহারা কি ক্ষুকার্ষ্যের অনুষ্ঠান

নবানভারত |

ডী ১৩

করিতেছে।” বস্তুতঃ এই বশজগতে, অবস্থা? ভেদে, প্রতোক নরনারীর ম'নপসিক শক্তি, হৃদয়ের ভার এবং জীবনগতি মধ্যে এত পার্থকা লক্ষিত হয় যে, সর্বতোভাঁবে এক স্মভাববিশিষ্ট এবং সমহ্বদয় দুইটা মনুষা পাওয়া! যায় কি না সন্দেহ। বিশেষতঃ দেশ ফালভেদে মনুষা-প্রক্কৃতির বিভিন্নতা ঘটিএ| থাকে। কিন্তু অবস্থাভেদে মহুষ্যের প্রকৃতিতে বিভিন্নতা থাক সত্বেও প্রত্যেক নর নাগীর মনের আত্বাত্তরিক শক্তি ষে, রহির্জ,হ-সমুখিত শক্তিকে পরাজয় পূর্বক যন্থুষ্যফে অবস্থার দাসত্বশৃজ্খল ₹ইতে নির্মক্ত করিতে সম্পূর্ণ সক্ষম, তদ্বিষয়ে কোন প্রকা- রেই সঙগেহ উপস্থিত হইতে পারে না। এই স্থলে ইহা উল্লেখ করা আবশ্তক যে, মানব মনের সমুদয় শক্তি প্রশ্ম,টিত হইবার পর্বঃ অর্থ/ৎ ন্লাল্যাবস্থায় মানব জীবন সম্পূর্ণ রূপে রহির্জমতস্থ অবস্থা দ্বারা গঠিত হইতে থকে অবস্থাবাদী প্িতেরো এই জন্যই রলিয়া থাকেন যে, বাল্যকালে মানব জীবনের গতি যেরূপ অবস্থ। দ্বারা নিরূ- পিত হইর। থাকে, যৌবন বার্ধক্যাবস্থার়ও সেই অরন্থা অপরাপর নুতন অবস্থার নহিত বশ্মিলিত হইয়া আজীবন জীবন- গতি পরিশারন করে আমাদের দেশে জন্মপত্রিক। অর্থ) কুষ্টি প্রস্তত করিবার যে প্রথা আছে,সেই প্রথা এই মতমূলক বলিয়। প্রতীয়মান হয়। কেনন] জন্মপত্রিক। রচ- গ্রিতা লগ্নাচার্য্যগণ, জম্মকালে কোন্‌ গ্রহ কোন্‌ স্থানে অবস্থিত ছিল, তাহ! নিরূপণ পূর্র্বক মনুষ্যের জীবনগতি সম্বন্ধে গ্রহগণের ফলাফল নির্ণর করিয়া থাকেন কিন্তু মঙ্গল” ময় পরমেশ্বর ঘদি সত্য সত্যই মানবর্জীবন এইরূপ অবস্থার দাসত্ব শৃঙ্খলে আবদ্ধ করিয়া

১৪

রাখির] থাফেন, তাহা হইলে মনুষ্য নিঃস- দেহে কেবল ছুঃখভোগের জন্যই স্থ্ এবং তাহার মঙ্গলময় নাম অর্থশৃূন্য সম্পূর্ণ ভ্রমা- আবক। . ফলতঃ, অবস্থার দাসত্ব হইতে যদি ম;নবন্জীবন কোন ক্রমেই নিম্ুক্তি হইতে না পারিত, তাহা হইলে পাপপুর্ণ ইছদিবংশে পুণাজ্যোতিম্বরূপ মহধি ঈশার আবির্ভাব

কখনই সম্ভব হইত না, এবং শ্রী-বিদ্বে্া |

সলও সেন্টপলরূপে জগতে খ্যাতি লাভ করিতে পারিতেন না। প্রত্যেক দেশের ইতিহাস সপ্রমাণ করিতেছে যে,ঘোর অজ্জ।ন তিমিরাচ্ছন্ন এবং পাপ-নিমজ্জিত জাতির মধ্যে সময়ে সময়ে জ্ঞান ধর্শের জ্যোতি- স্বরূপ পুণ্যাত্ম সাধুপুরুষগণ জন্মগ্রহণ করিয়া দেশীয় প্রচলিত কুসংস্ক'র এবং অজ্ঞানতা দুর করিবার জন্য আজীবন যত্ত করিয়া গিয়া- ছেন। ই্ঠাদিগের জীবনে অলৌকিক ধর্শা- বল) সত্যের জ্যোতি* এবং ত্যাগম্বীকারের ভাব সন্দর্শন করিয়! ইহাদিগকে কে!ন কোন জাতি ঈশ্বর-প্রেরিত মহাপুরুষ এৰং কোন কোন জাতি ঈশ্বরের অবতারঃবলিয় বিশ্বাস করিয়। থাচ+ন। এমন কি, চিন্তাশীল ব্যাক্তি- গণের যধ্ও কেহ কেহ এই সাধুদিগের হূর্লভ জীবন ল!ভের কারণ নির্দেশ করিতে অসমর্থ হইয়া অবশেষে এইরূপ দিদ্ধান্ত করেন যে, এই সকল মহ্থাত্ব! ঈশ্বরের বিশেষ বিধান অথব! ইশ্বর কর্তৃক বিশেষ কার্বা সম্পাদনার্থ জগতে প্রেরিত হয়েন। কিস্ত এই সাধু- পুরুষদিগের জীবনগতি যে, ত।হানিগের চতুর্দিকস্থ পদার্থ,ঘটন। কিম্বা অবস্থা-সমুখিত শক্তি হবার সম্পূর্ণরূপে পরিশাসিত হয় না, তাহা অবশ্যই ম্বীকার করিতে হইবে কেন না, তীহাদিগের মন দেশ-কাল-প্রচলিত জবস্থার শৃদ্ধল হইতে নিষ্ঘুক্ত না হইলে,

নবাভারত

(১ম খণ্ড, ১ম সংখ্যা

ভীহারা কখনই এই প্রকার সাধুক্গীবণ লাভ করিতে সমর্থ হইতেন নাঁ। এই সকল সাধু- পুরুষের জীবনগতি পুজ্ানুপুজ্খরূপে পরীক্ষা করিয়। দেখিলে, মানবমনে যে স্বাধীন ইচ্ছার সঞ্চার হইতে পারে, তাহা নিঃসন্েহ রূপে প্রতীয়মান হয় |

ইতিপুর্ব্বে উল্লিখিত হইয়াছে যে, পৃথিবী, যেরূপ তছুপর্িন্ত সমুদয় বস্ত কর্তৃক মাক হওয়া সত্বেও, তছ্পর্রস্থ পদার্থ সমূহের নিকট পরিচালিত না হইয়॥ আপন প্রবলতর আকর্ষণ দ্বার] উপরিস্থ পদার্থ নকলকে আপ- নার দিকে আকর্ষণ করিয়া! ভূতলশারী করি- তেছে ; সেই প্রকার মানব মনের আত্যন্ত- রিক শক্তি, বহির্জগতের পদার্থ ঘটনা অবস্থা-সমুখিত শক্তি অপেক্ষা, প্রবলতর

1 হইলে নিশ্চয়ই মনুষ্য অবস্থার দাসত্ব শৃঙ্খল,

হইতে (নম্মুক্তি হইতে পারে ্‌

এই স্থানে জিজ্ঞান্য হইতে পারে, মনুষা মন কি প্রকার গতি প্রাপ্ত হইলে বহির্জগঞ্চ- সমুখিত শক্তিকে পরাস্ত করিয়া আপন স্বাধীন ইচ্ছ। সংরক্ষণ করিতে পারে এই. প্রশ্নের উত্তরে কেবল ইহাই বল॥ যাইতে পারে যে, মন যখন আপনার সাম্যভাক, (61011197151) সংরক্ষণ করিতে পারে» তখনই শ্বাধীন ইচ্ছা সঞ্চালনে সমর্থ বহির্জগতে যখন কোন বস্ত ছুই বিপরীত দিক হইতে ছুইটী সমান বল দ্বারা আকৃই্ হয়, তখন নিশ্চল হইয়! সাম্যভাব প্রাপ্ত হয়, সেই প্রকার মানবমন বহির্জগতের পদার্থ ঘটনা ব। অবস্থা-সমুখিত ভিন্ন ভিন্ন বিপরীত শক্তি কর্তক এক সময়ে সম- ভাবে আকৃষ্ট হইয়া সাম্যভাৰ অবলম্বন করিতে পারে। সামাভাব প্রাপ্ত মন যে অনায়াষে শ্বীর় প্রকৃতিগত গতি প্রাপ্ত হয়,

টজ্যাষ্ঠ, ১২৯০1)

তাহা তি সহজেই প্রতিপন্ন হইবে। * কেনন। সাম্য অবস্থায় বস্ত কিন্বা প্রাণী সর্বপ্রকার বাহ্যিক শক্তি-সমুখিত গভিবিব- , ক্দিত হইয়1, আপন প্রকৃতিগত ভাব প্রাপ্ত “হয়। কোন বস্ত্র ভিন্ন ভিন্ন দিক হইতে 'আকৃষ্ট হুইয়। গতি প্রাপ্ত হইলে প্রত্যেক আকর্ষণ ব1 বল-সম্ভূত গতি কর্তৃক ব্যাঘাত প্রাপ্ত-হয়, এবং সেই ব্যাঘাত দ্বার প্রত্যেক গতির ' বেগই ক্রমশঃ ভাস প্রাপ্ত হইতে থাকে; এবং চতুর্দিকস্থ আকর্ষণ বা বল- সম্ভূত গতি এই প্রকারে পরস্পরের প্ররতিঘাত দ্বারা ক্রমে ক্রমে হাস প্রান্ত হইয়! অবশেষে আকুষ্ট বস্তকে সর্বপ্রকার গতি পরিশৃন্য করে। বরির্জগতস্থ পদার্থ' ঘটনা অবস্থ/-সমুখিত যতগুলি ভিন্ন ভিন্ন প্রকারের শক্তি মানবমনে ইচ্ছ। উৎপাদন পূর্বক জীবনগতি নিরূপণ করে, তন্মধ্যে কতকগুলি প্রবৃত্বি-উত্তেজক কতকগুলি নিবৃত্তি-প্রদায়ক, সুতরাং যখন হুইটা বিরুদ্ধ আকর্ষণ দ্বারা মানবমন আকৃষ্ট হইয়া থাকে, তখন সময়ে সময়ে মানবমন লাময- ভাব অবলম্বন করিতে সম্পূর্ণ সমর্থ। কিন্ত প্রবৃত্তি-উত্তেক্জক শক্তিগুলি বখন নিবৃত্তি প্রদায়ক শক্তিগুলিকে পরাস্ত করিয়! ম/নব-

কক 11126 01)15918%] 00962013661709 ০£ 20080100188 10:088 ড1181010) 8৪ 1১6. £079 ৪2. ,2080888765188 6109 10159182176 ০1 1009 61010) 0 ছা1)101)) ৪৪ 1০ 09016 52৮) 1080889100088 (18 01৮61881167 0? 0600100130910101) 9৪7 10108 836০0 01%6:26706 01088) 26 009 88276 (1129 1060888)62669 1106 001010020 98629118)- 00৬0৮ 0 0%191)09, 195৪ [00610] 0611)6 0706102 00067 79518621066 18 0077017)09117 80067106 090.0061903 010 &00858 00088108 ৫90110610108 70911 198816 0 (06 069890801) ০01 (109 11)061010,

চ92996 9960081,

নব্যভারত

মনের উপর আধিপত্য বিস্তার করে, তখনই কেবল মানুষ অবস্থা দ্বারা পরিশাসিত হইয়া ঘটনার আ্াোতে ভানিতে থাকে সেই সময়ে মাছছষের কোন প্রকার শ্বাধীন ইচ্ছা থাকে নাঁ। কিন্তু গ্রবৃত্তি নিবৃত্তি এতছু- ভয়ের সম্মিলনে বখন মন্থ্ষ্মনকে কামনা শৃনাকরিয়া, তাহার জ্ঞানচক্ষুকে ঈশরেরদিকে উন্মা'লত করে, তখনই কেবল মানব স্বীয় প্রকৃতিগত ভাব প্রাপ্ত হইয়! স্বাধীন ইচ্ছা সঞ্চালনে সক্ষম মন, ফললাভ-প্রত্যাশ! বিবর্জিত না হইলে আপন প্রকৃতিগত স্বাধীনভাব লাভ করিতে পারে না, বিষয় বিশেষের কামন। দ্বারা পরিচালিত হইয়। কক্ষ গ্রহের ন্যায় গত্যস্তর প্রাপ্ত হয়। কিন্ত এই প্রলোভন পরিপূর্ণ সংসারে ছুর্বলমতি মানব কি কি উপায় অবলম্বন করির সর্ধপ্রকর প্রলোভন